আলুর ‘উপযুক্ত মূল্য’ না পেয়ে আত্মহত্যা পশ্চিম মেদিনীপুরে! মর্মান্তিক ঘটনায় শোকস্তব্ধ সারা জেলা

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৩ মার্চ: এতদিন শুধু কানে শুনে এসেছিলেন জেলাবাসী! এবার মর্মান্তিক সেই ঘটনা প্রত্যক্ষও করতে হল। ফসলের দাম না পেয়ে আত্মহত্যা! স্থানীয়দের দাবি অনুযায়ী, আলুর উপযুক্ত মূল্য না পাওয়ায় আত্মঘাতী হলেন, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গোয়ালতোড় থানার মঙ্গলপাড়া গ্রামের এক চাষি। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ২২ বছর বয়সী যুবক সৌতম রম চড়া সুদে ঋণ নিয়ে প্রায় ১০ বিঘা জমিতে আলু চাষ করেছিলেন এই বছর। কিন্তু আলুর দাম না পাওয়ায় ঋণ শোধ করতে পারছিল না সৌতম। দিন গড়ানোর সাথে সাথে পাওনাদারদের তাগাদাও বেড়ে আসছিল! গতকাল রাতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে, কিছুটা দূরে একটি পুকুর পাড়ে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন সৌতম রম! আজ সকালে স্থানীয় মানুষেরা সৌতমের ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পায়। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়। ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে সর্বত্র!

thebengalpost.in
আত্নহত্যা পশ্চিম মেদিনীপুরে :

প্রসঙ্গত, এবার আলুর উপযুক্ত মূল্য পাচ্ছেন না চাষিরা। মাঝখানে দাম কিছুটা বাড়লেও ফের দামের পতন হয়েছে! এই মুহূর্তে, মাঠ থেকে প্রতি কুইন্টাল বিক্রি হচ্ছে ৫০০-৫৫০ টাকায়। কিন্তু, চড়া সুদ সহ ফসল ফলানোর খরচে তা পোষাচ্ছেনা! ধার শোধ করতে হিমশিম খাচ্ছেন চাষিরা। অন্তত ৭৫০-৮০০ টাকা/প্রতি কুইন্টাল (১০০ কেজি) দাম হলে, কোনোমতে খরচটুকু পুষিয়ে যেত বলে জানাচ্ছেন অনেক চাষি। এই পরিস্থিতিতে, ধার করে ১০ বিঘা আলু লাগিয়ে বিপদে পড়ে গিয়েছিলেন সৌতম। এমনটাই দাবি পরিবার ও গ্রামবাসীদের। তাঁদের আরও অভিযোগ, সরকারি সাহায্যের আশ্বাস শুধুই অলীক কল্পনা মাত্র! চাষিরা আছেন সেই অন্ধকারেই। এদিকে, তরতাজা যুবক সৌতমের মৃত্যু’র ঘটনায় তদন্তে নেমেছে পুলিশ। মৃত্যু’র পেছনে অন্য কোনো কারণও লুকিয়ে আছে কিনা, দেখা হচ্ছে!

thebengalpost.in
বিজ্ঞাপন (Advertisement) :

আরও পড়ুন -   অসহায় রিক্সা ও ট্রলি চালকদের পাশে মেদিনীপুর শহরের বামপন্থীরা, দুঃস্থ মানুষের পাশে বাম শিক্ষক সংগঠনগুলিও