মধ্যবিত্তের মাথায় হাত! নির্বাচনের মধ্যেই স্বল্প সঞ্চয়ে সুদের হার কমল, সান্ত্বনা স্বরূপ ১০ টাকা কমানো হল গ্যাসের দাম

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, ১ এপ্রিল: মধ্যবিত্তের মাথায় হাত! ৫ রাজ্যে নির্বাচনের মধ্যেই স্বল্প সঞ্চয়ে সুদের হার আরও কমে গেল। বুধবার অর্থাৎ ৩১ শে মার্চ কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে এই ঘোষণা করা হয়েছে। এই ধাক্কায় স্বল্প সঞ্চয়ে সুদের হার ০.৫ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র। এর ফলে, স্বল্প সঞ্চয়ে সুদের হার ৪ শতাংশ থেকে কমে হচ্ছে ৩.৫ শতাংশ। আজ, ১ এপ্রিল থেকে নতুন এই হার কার্যকর হচ্ছে।

thebengalpost.in
কমল সুদের হার :

একইসঙ্গে কোপ পড়েছে পিপিএফ এর হারেও। এক্ষেত্রে পিপিএফ-এর সুদের হার ৭.১ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৬.৪ শতাংশ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ১৯৭৪ সালের পর, গত ৪৬ বছরের মধ্যে এই প্রথম এতটা কমল পিপিএফে সুদের হার! শুধু পিপিএফ নয়, ন্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেট সুদের হার ৬.৮ শতাংশ থেকে কমে হয়েছে ৫.৯ শতাংশ। সেভিংস ডিপোজিট সুদের হার কমে হয়েছে ৩.৫%। এছাড়াও, মেয়াদী জমার ক্ষেত্রেও সুদের হার কমানো হচ্ছে। এক বছরের ডিপোজিটে সুদের হার ৫.৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৪.৪ শতাংশ করা হয়েছে।
দুই বছরের ডিপোজিটে সুদের হার কমে ৫ শতাংশ। ৩ বছরের ডিপোজিটে সুদের হার কমে ৫.১ শতাংশ। ৫ বছরের ডিপোজিটে সুদের হার কমে ৫.৮ শতাংশ।
পাঁচ বছরের রেকারিং ডিপোজিটেও সুদের হার কমে ৫.৩ শতাংশ। বাদ যাচ্ছেন না প্রবীণ নাগরিকরাও। সিনিয়র সিটিজেন্সদের বিভিন্ন সঞ্চয় প্রকল্পের সুদের হার ৭.৪ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৬.৫ শতাংশ করা হয়েছে। মান্থলি ইনকাম অ্যাকাউন্টে সুদের হার কমে হয়েছে ৫.৭ শতাংশ। ৬ বছর আগে সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনার সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোদি জমানায় এই প্রকল্পে সুদের হার ৯.১ থেকে কমতে কমতে নেমে এসেছে ৬.৯ শতাংশে! কিষাণ বিকাশ পত্র বা KVPতে সুদের হার নেমে এসেছে ৬.২ শতাংশ। প্রায় সব ধরনের সঞ্চয়ে সুদের হার কমায় বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ করেছে বিরোধীরা। যদিও সুদ কমানো নিয়ে সাফাইয়ের সুর বিজেপির গলায়।
Big Update (সকাল ৬ টা) : কমছে না সুদের হার। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন, ২০২০-‘২১ এর সুদের হারই থাকছে। ভুল করে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছিল।

thebengalpost.in
অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণের টুইট :

thebengalpost.in
১০ টাকা কমল গ্যাসের দাম :

অন্যদিকে, গত কয়েক মাসে গ্যাসের দাম প্রায় ১২৫ টাকা বেড়ে গিয়েছিল। অবশেষে, তা মাত্র ১০ টাকা অমানো হল। আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম এবং ডলার প্রতি টাকার দামের নিরিখে রাষ্ট্রায়াত্ত তেল সংস্থাগুলিই প্রতি মাসে গ্যাসের মূল্য ঠিক করে। সেই অনুযায়ী গত কয়েক মাসে ধাপে ধাপে মোট ১২৫ টাকা দাম বেড়েছে রান্নার গ্যাসের। নতুন করে করোনার প্রকোপ দেখা দেওয়ায় মার্চে তেলের দামে খানিকটা পতন ঘটেছে। তাতেই রান্নার গ্যাসের দাম সামান্য কমল বলে মনে করা হচ্ছে। তবে, এই দাম শুধুমাত্র ভর্তুকিযুক্ত সিলিন্ডারের ক্ষেত্রেই কমানো হয়েছে। দেশের ৩ বৃহত্তম জ্বালানি সরবরাহ সংস্থা ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন, ভারত পেট্রোলিয়াম, এবং হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়াম সম্মিলিত ভাবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বুধবার মধ্যরাত থেকে নয়া দাম কার্যকর হবে। উল্লেখ্য যে, নতুন দাম অনুযায়ী শহর কলকাতায় বৃহস্পতিবার থেকে ১৪.২ কেজি ওজনের ভর্তুকিপ্রাপ্ত প্রতি সিলিন্ডারের দাম হবে ৮৩৫ টাকা ৫০ পয়সা। সেই তুলনায় দিল্লি, মুম্বই এবং চেন্নাইয়ে কিছুটা কম হবে রান্নার গ্যাসের দাম। দিল্লি, মুম্বইয়ে সিলিন্ডার পিছু ৮০৯ টাকা দাম পড়বে। চেন্নাইয়ে সিলিন্ডারের দাম পড়বে ৮২৫ টাকা

আরও পড়ুন -   করোনা মুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরলেন জেলার ১০ জন, নতুন করে আক্রান্তও ১০ জন, রেকর্ড ভেঙে রাজ্যে ৪৩৫, মৃত ১৭ জন