রত্নার বিরুদ্ধে প্রার্থী করা হয়নি! অপমানিত শোভন-বৈশাখী বিজেপি ছাড়তে চলেছেন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, কলকাতা, ১৪ মার্চ : কিছুক্ষণ আগেই তৃতীয় ও চতুর্থ দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে বিজেপি’র দিল্লি সদর দফতর থেকে। সেই তালিকায় বেহালা পূর্বে’র প্রার্থী হিসেবে শোভন চট্টোপাধ্যায় এর নাম ঘোষণা করা হয়নি। প্রার্থী করা হয়নি তাঁর বন্ধু ও রাজনৈতিক সহকর্মী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়’কেও। তার বদলে বেছে নেওয়া হয়েছে টলি নায়িকা পায়েল সরকার’কে। আর এতেই ক্ষুব্ধ হয়েছেন শোভন-বৈশাখী! তাঁরা বিজেপি’র সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং নিজেদের সিদ্ধান্তের কথা রাজ্য ও কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব’কে ই-মেইল করে জানিয়ে দিয়েছেন।

thebengalpost.in
রত্না’র বিরুদ্ধে লড়তে চেয়েছিলেন শোভন :

সূত্রের খবর অনুযায়ী, দলীয় বৈঠকে শোভন চট্টোপাধ্যায়’কে বেহালা পশ্চিমের প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু, রাজি হননি শোভন। শোভন চেয়েছিলেন, বেহালা পূর্বে তাঁকে প্রার্থী না করা হলেও, বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়’কে প্রার্থী করা হোক! তার পরেও, যেভাবে পায়েল সরকার’কে এই কেন্দ্রের প্রার্থী করা হয়েছে, তাতে তাঁরা ‘অপমানিত’ বলে উপলব্ধি করেছেন। সূত্রের খবর অনুযায়ী, শোভন‌ চট্টোপাধ্যায় এই এলাকার বিধায়ক হিসেবে অনেক কাজ করেছেন এবং এলাকাও চেনেন হাতের তালুর মতো, তাই এই কেন্দ্র ছেড়ে দিয়ে তিনি বেহালা পশ্চিমে যেতে চাননি। অপরদিকে, বিজেপি চায়নি, রত্নার বিরুদ্ধে শোভন বা বৈশাখী’কে প্রার্থী করতে! আর, দলের এই সিদ্ধান্তকেই নিজেদের স্বাভিমানে বা আত্মসম্মানে আঘাত বলে মনে করেছে শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ, কোনো পরিস্থিতিতেই তাঁরা রত্না চট্টোপাধ্যায়ের কাছে মথা নীচু করতে রাজি নয়! শেষমেশ, দল ছাড়ারই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন শোভন-বৈশাখী। এই বিষয়ে এখনও বিজেপি’র শীর্ষ নেতৃত্বের কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। এই মুহূর্তে, খড়্গপুরের শাহি-শো ঘিরে সকলেই ব্যস্ত!

আরও পড়ুন -   কলকাতার পথে পা বাড়িয়েও কোথায় 'উধাও' হলেন অধিকারী? হাজারো জল্পনার মাঝেই কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বরাদ্দ হল শুভেন্দু'র জন্য