সব রেকর্ড ভেঙে পশ্চিম মেদিনীপুরে সংক্রমিত ৪২ জন! শালবনী করোনা হাসপাতালে পরিদর্শক দল

thebengalpost.in
শালবনী করোনা হাসপাতালে জেলার স্বাস্থ্য কর্তারা :

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ৯ মার্চ: করোনার করাল ছায়া ক্রমেই গ্রাস করে ফেলছে সারা দেশকে! ‘করোনা কার্ফু’ র পথে হাঁটছে একাধিক রাজ্য। প্রয়োজন অনুযায়ী লকডাউনও করা হচ্ছে। এদিকে, গতকাল (৮ এপ্রিল) সন্ধ্যার বুলেটিন অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গেও একদিনে রেকর্ড সংখ্যক মানুষ করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। দু’ হাজার – আড়াই হাজারের গন্ডী অতিক্রম করে এবার তিন হাজারের দিকে এগোচ্ছে রাজ্য! গতকাল রাজ্যে ২৭৮৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের। কলকাতা (৭১৬), দুই ২৪ পরগণা (৫৯৫ ও ১৬৭), হাওড়া (২২১), হুগলি (১৫৭), পশ্চিম বর্ধমানের (১৪৮) অবস্থা ভয়াবহ! তবে, তীব্র গতিতে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে মালদা (১১৬), মুর্শিদাবাদ (১০৬), নদীয়া (৮৯), পূর্ব বর্ধমান (৫৯), পুরুলিয়া (৫৪) এবং দুই মেদিনীপুরেও (পূ: ৫৩, প: ৩০)। বৃহস্পতিবারের বুলেটিন অনুযায়ী, গত চব্বিশ ঘণ্টায় পুরুলিয়া তে করোনা আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যুর খবরও পাওয়া গেছে। এছাড়াও, কলকাতায় ৩ জন এবং উঃ ২৪ পরগণা, পূর্ব বর্ধমান, মালদায় ১ জন করে মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

thebengalpost.in
রাজ্যের করোনা বুলেটিন :

অপরদিকে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে শুক্রবার সকালে যে করোনা রিপোর্ট পাওয়া গেছে, তাতে গত চব্বিশ ঘণ্টায় ৪২ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে! এখনও পর্যন্ত যা সর্বাধিক। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের নিজস্ব রিপোর্ট অনুযায়ী, করোনার মারাত্মক ঢেউ এবার আছড়ে পড়ল ঘাটাল মহকুমায়। বিশেষত, দাসপুরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হয়ে উঠেছে! ৪২ জনের মধ্যে ২০ জনই দাসপুর ১ (১০) ও দাসপুর ২ (১০)। এছাড়াও, ঘাটালে ২ জন ও ক্ষীরপাইতে ১ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। অন্যদিকে, মেদিনীপুর শহরে ফের ৪ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। আইআইটি খড়্গপুরে (IIT Kharagpur) ৩ জন, রেলের ৪ জন, টাটা মেটালিক্সের ১ জন সহ খড়্গপুরে ১০ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। এদিকে, গতকাল শালবনীর পর এদিন জঙ্গলমহলের গোয়ালতোড়ে ২ জন (ফতেসিংপুর) করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। ডেবরায় ফের ২ জনের (বড়গড় ও ভোগপুর-বালিচক) করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে এদিন।

thebengalpost.in
শালবনী করোনা হাসপাতালে জেলার উচ্চ পর্যায়ের পরিদর্শক দল :

এই পরিস্থিতিতে, গতকাল (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যায় পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি উচ্চ পর্যায়ের পরিদর্শক দল পাঠানো হয়েছিল শালবনী সুপের স্পেশালিটি হাসপাতালে। হাসপাতালে করোনা পরিকাঠামো খতিয়ে দেখার জন্যই প্রশাসনের আধিকারিকেরা এই পরিদর্শন করলেন। আগামীকাল (১০ এপ্রিল) থেকে শালবনী সুপার স্পেশালিটিতে ৫০ টি HDU বেড (তৃতীয় ও চতুর্থ তলে) নিয়ে করোনা চিকিৎসা পরিষেবা শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলার উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক (১) ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী। ডাঃ সারেঙ্গী ছাড়াও এই পরিদর্শক দলে ছিলেন অতিরিক্ত জেলাশাসক পিনাকী রঞ্জন ঘোষ, উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক (২) ডাঃ জয়দেব বর্মন। এছাড়াও ছিলেন, শালবনী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার তথা অতিরিক্ত মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ নন্দন ব্যানার্জি এবং ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ নবকুমার দাস। পরিকাঠামো খতিয়ে দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন পরিদর্শক দল।

আরও পড়ুন -   সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ! দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রামে বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল হাওয়া অফিস