ভোটকর্মীদের ‘পারিশ্রমিক’ এর তালিকা প্রকাশ করল নির্বাচন কমিশন, নির্বাচনী দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়ে প্রধান শিক্ষকদের আবেদন ডিভিশন বেঞ্চে

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, কলকাতা, ১৩ মার্চ: ভোটকর্মীদের ‘পারিশ্রমিক’ বা ‘সাম্মানিক’ (Remuneration) এর তালিকা প্রকাশ করল নির্বাচন কমিশন। একুশের বিধানসভা নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্বে যে সকল প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসার সহ ভোটকর্মী ও আধিকারিকরা থাকবেন, তাঁদের পারিশ্রমিক বিজ্ঞপ্তি আকারে প্রকাশ করে স্পষ্ট করে দিল রাজ্য নির্বাচন কমিশন। প্রশিক্ষণের প্রথম দিন থেকে ভোটগ্রহণের দিন পর্যন্ত, পারিশ্রমিক নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে, যে বিতর্কে উত্তাল হয়েছিল রাজ্য, (প্রশিক্ষণের দিনগুলির জন্য) সেই ‘টিফিন’ বা ‘মিল’ বাবদ অর্থ আলাদা করে বরাদ্দ করা হয়নি এবারও! শুধুমাত্র, ভোট গ্রহণের দিনের জন্য যথারীতি ১৭০ টাকা করে বরাদ্দ করা হয়েছে। দেখে নিন কোন শ্রেণীর ভোটকর্মী কত পারিশ্রমিক বা সাম্মানিক পেতে চলেছেন।

thebengalpost.in
ভোটকর্মীদের ‘পারিশ্রমিক’ :

প্রিসাইডিং অফিসার’দের প্রতিটি (৩ টি) ট্রেনিং পিছু ৩৫০ টাকা সহ মোট ২২৭০ টাকা পাবেন (এর মধ্যে ৩৫০ টাকা বুথের অন্যান্য খরচ)। অন্যদিকে, পোলিং অফিসাররা ২৫০ টাকা সহ (৩ টি/২টি) মোট ১৪২০ টাকা পাবেন ফার্স্ট পোলিং অফিসাররা এবং ১১৭০ টাকা পাবেন অন্যান্য পোলিং অফিসাররা। এদিকে, ভোটের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়ে, কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করল প্রধান শিক্ষকদের সংগঠন। সিঙ্গেল বেঞ্চে একটিমাত্র শুনানি হওয়ার পর, আরও একমাস পরে শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে, তাই, প্রধান শিক্ষক’রা এবার সরাসরি ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করলেন। খুব শীঘ্রই এই মামলার শুনানি হতে পারে বলে জানা গেছে। প্রধান শিক্ষকদের সংগঠনের পক্ষ থেকে ভাদুতলা বিবেকানন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ড. অমিতেশ চৌধুরী জানিয়েছেন, “প্রধান শিক্ষকদের উপর বিদ্যালয়ের সর্বাধিক দায়িত্ব ন্যস্ত থাকে। পঠন পাঠন ও প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করার সাথে সাথে, বিদ্যালয়ের প্রধান দায়িত্ব পালন করতে হয় তাঁকে। ফলে, অন্যান্য শিক্ষকদের সঙ্গে তাঁদেরও যদি ভোটের দায়িত্ব পালন করতে যেতে হয়, তবে ওইদিনগুলিতে বিদ্যালয় সম্পর্কিত কোনও গুরুতর প্রয়োজন হয়ে পড়লে অসুবিধা হতে পারে। তাই, নেহাতই প্রয়োজন না পড়লে, প্রধান শিক্ষকদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া উচিৎ বলে মনে করেছি আমরা। দেখা গেছে, অনেক সহ শিক্ষক ও সরকারি কর্মীরা ডিউটি পাননি, কিন্তু বেশিরভাগ প্রধান শিক্ষকদের ডিউটি এসেছে। তাই, এই আবেদন।”

thebengalpost.in
নির্বাচন কমিশনের বিজ্ঞপ্তি :

আরও পড়ুন -   প্রথম পর্বের গণতন্ত্র-উৎসব শেষে ঘরে ফিরলেন 'ওরা'! আপাত-নির্বিঘ্ন নির্বাচনে দুই মেদিনীপুর থেকে দুই 'নজিরবিহীন' অভিযোগ অথই জলে