মৃত্যু আর সংক্রমণের রেকর্ড ভাঙার দিনই “টিকা উৎসব” এর ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর, কোভিডের নতুন উপসর্গগুলি দেখে নিন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, নিউ দিল্লি, ৮ এপ্রিল: করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আজ সকালে দিল্লির এইমস (AIIMS- All India Institute of Medical Sciences) এ গিয়ে করোনা ভ্যাকসিন ” দ্বিতীয় ডোজ নেন নরেন্দ্র মোদি। এর পাশাপাশি, মানুষকে টিকা নেওয়ার ব্যাপারে উৎসাহ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ট্যুইটে তিনি লেখেন, “করোনা-১৯ টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলাম। করোনাকে হারাতে টিকা অন্যতম একটি উপায়। আপনারা যদি টিকা নেওয়ার উপযুক্ত হন, তাড়াতাড়ি নিয়ে নিন। নিজের নাম নথিভুক্ত করুন (Co-Win – https://www.cowin.gov.in/home পোর্টাল বা অ্যাপসে) ।” উল্লেখ্য যে, মার্চ মাসের ১ তারিখে কোভ্যাক্সিনের (Covaxin) প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁকে প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন দিয়েছিলেন পুদুচেরির নার্স পি. নিভেদা। এদিনও তিনি উপস্থিত ছিলেন। তবে, ভ্যাকসিন দেন পাঞ্জাবের নার্স নিশা শর্মা। প্রধানমন্ত্রী’কে ভ্যাকসিন দেওয়ার পর নিশা জানিয়েছেন, “আমি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে টিকার ডোজ দিয়েছি। তিনি আমাদের সঙ্গে কথাও বলেছেন। আমার কাছে এটি একটি স্মরণীয় মুহূর্ত।”

thebengalpost.in
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর টুইট :

অপরদিকে, গতকালের ১ লক্ষ ১৫ হাজারের রেকর্ড ভেঙে দিয়ে আজ দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন, ১ লক্ষ ২৬ হাজার ৭৮৯ জন। মৃত্যু’র রেকর্ডও ভেঙে গেছে! গতকাল ৬৩০ জনের পর আজ করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৬৮৫ জনের। তবে, ইতিমধ্যে দেশের প্রায় ৯ কোটি ২ লক্ষ মানুষ করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে নিয়েছেন, যা নিঃসন্দেহে আশাব্যঞ্জক তথ্য। এই মুহূর্তে সারা দেশ জুড়ে ৪৫ উর্ধ্ব সাধারণ মানুষদের ভ্যাকসিনেশন চলছে। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশবাসীকে দ্রুততার সঙ্গে ভ্যাকসিন নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। আজ মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন আগামী ১১ থেকে ১৪ ই এপ্রিল দেশজুড়ে চলবে “টিকা উৎসব।” করোনা ভ্যাকসিন বা টিকা’র উপরই এই মুহূর্তে সর্বাধিক জোর দেওয়া হচ্ছে সংক্রমণ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে। যদিও, বিভিন্ন রাজ্য লকডাউন ও নাইট কার্ফু’র পথে হাঁটা‌ শুরু করেছে প্রয়োজন অনুযায়ী। এই বিষয়টি আপাতত রাজ্যের উপরই ছেড়েছে কেন্দ্র সরকার। তবে, লকডাউন ও ভ্যাকসিনেশনের সাথে সাথে করোনা টেস্ট, মাস্ক ব্যবহার এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার উপরও জোর দেওয়ার উপর গুরুত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

thebengalpost.in
টিকা উৎসবের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর :

অন্যদিকে, করোনা’র (কোভিড- ১৯) নতুন উপসর্গ (করোনার New Strain বা নতুন স্ট্রেইন) সম্পর্কে বিভিন্ন দেশের বিশেষজ্ঞরা যে তথ্য দিয়েছেন, সেগুলি হল-
১. Pink Eyes (গোলাপি বর্ণের চোখ)– চীন দেশে করা একটি সমীক্ষা অনুসারে, গোলাপি বা লাল চোখ (কনজেক্টিভাইটিস/Conjunctivitis) হল করোনা (COVID-19) সংক্রমণের নতুন উপসর্গ। গোলাপি চোখের মধ্যে লাল, ফোলাভাব দেখা দিচ্ছে এবং চোখে জল আসছে ক্ষণে ক্ষণে। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ১২ জন করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেনে সংক্রামিত হয়েছিল।
২. Hearing loss/Impairment (শ্রবণ ক্ষমতা হ্রাস)- শ্রবণ ক্ষমতা হ্রাস পাচ্ছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে। ৫৬ জনের মধ্যে সমীক্ষা করা হয়। যার মধ্যে দেখা গিয়েছে ২৪ জন শ্রবণ ক্ষমতা হারিয়েছে।
৩. Gastrointestinal Symptoms/Diarrhea বা পেটের অসুখ (গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল/ডাইরিয়া)- গবেষকরা জানাচ্ছে হজম শক্তির ক্ষতি করছে। ডায়রিয়া, বমি বমিভাব, পেটের ব্যাথা দেখা দিচ্ছে। তাই, হজমের সমস্যায় বা পেটের অসুখে ভুগলে দ্রুত করোনা পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন -   করোনার কবলে গত চব্বিশ ঘণ্টায় পশ্চিম মেদিনীপুরে ৫ জনের মৃত্যু, ৮৭ জন সংক্রমিত! কড়া সতর্কবার্তা স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে