শুধু কেশপুরেই গ্রেফতার ২৭ জন! পালিয়ে গিয়েও লড়াইয়ে থাকলেন প্রীতিশ

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ১ এপ্রিল: চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল কেশপুর, এখনও ভোট-বঙ্গের জ্বলন্ত অঙ্গার সেই! বোমাবাজি, বোমা উদ্ধার, ভাঙচুর, মারধর তো নির্বাচনের আবহে ধারাবাহিক ভাবে চলেছে; ভোটের আগের দিন বুধবার রাতে তৃণমূল কর্মী খুন হওয়ার পর পরিস্থিতি আরও আরও উত্তপ্ত হয়। তৃণমূল কর্মী উত্তম দলুইয়ের মৃত্যুর পর, আজ সকাল থেকেই ফুঁসছিলেন শাসকদলের কর্মী-সমর্থকরা। ভোট শুরু হওয়ার পর থেকেই শুরু হয় হামলা। প্রথমে বিজেপি প্রার্থীর নির্বাচনী এজেন্ট তন্ময় ঘোষের গাড়িতে হামলা চালানো হয়। বিজেপির এক মহিলা পোলিং এজেন্টও আহত হন। এরপর, বিজেপি প্রার্থী প্রীতিশ রঞ্জন কোনারের উপর হামলা হয়। কোনোমতে গ্রামবাসীদের সাহায্যে পালিয়ে বাঁচেন তিনি। পুলিশ উদ্ধার করার পর, বিজেপির এই শিক্ষক ও লেখক প্রার্থী জানান, “এক সংখ্যালঘু মহিলাই আজ তাঁর প্রাণ বাঁচিয়ে দেন।” তবে, এই ঘটনায় আহত হন বিজেপি প্রার্থী এবং তাঁর গাড়ির চালক সহ ৩ জন। এরপরই, শেষবেলায় ফের এর বদলা নেয় বিজেপি! শ্যামচাঁদপুরে তৃণমূল এজেন্ট হাবিবুর রহমান’কে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ ওঠে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। মানতা গ্রামেও তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে আহত হন ৭ তৃণমূল কর্মী। সকলকেই মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে।

thebengalpost.in
কেশপুরে উত্তপ্ত পরিস্থিতি :

thebengalpost.in
আহত তৃণমূল এজেন্ট :

পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুরের গুণহারা গ্রামে বিজেপি প্রার্থী’র গাড়ি ঘিরে ধরে ভয়াবহ হামলা চালানো হয় সকাল সাড়ে এগারোটা নাগাদ। বাদ যায়নি সংবাদমাধ্যমের গাড়িও। প্রীতিশ রঞ্জন কোনারের গাড়িতে বাঁশ, লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়ি আঘাত করা হয়। ইঁটবৃষ্টি চলে অনবরত। দরজা খুলে মাঠের রাস্তা দিয়ে পালিয়ে যান তিনি। তাঁকে পালিয়ে যেতে সাহায্য করেন গ্রামের কিছু মহিলা। পরে পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে। ফিরে এসে গ্রামের সংখ্যালঘু মহিলাদের ধন্যবাদ জানান তিনি। অন্যদিকে, শেষ বেলায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে মোট ৮ জন তৃণমূল কর্মী আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী শিউলি সাহা। তিনি বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে গুন্ডামি ও তাদের এজেন্টদের মারধর করে ভোট লুঠের অভাযোগ এনেছেন। সবমিলিয়ে কেশপুরে আজ যেভাবে নির্বাচন হয়েছে, তাতে এটুকু পরিষ্কার, লড়াইয়ের ময়দানে জোর টক্করে যুযুধান দুই প্রার্থী শিউলি ও প্রীতিশ। কেশপুরের মাটিতে জোড়াফুল আর পদ্নফুলের লড়াইয়ে দুই প্রার্থীই যে ফলাফলের আগে পর্যন্ত ময়দানে টিকে রইলেন তা বলাই বাহুল্য! পুলিশ বিজেপি প্রার্থী’র উপর হামলার ঘটনায় একাধিক মহিলা সহ মোট ১৯ জনকে গ্রেফতার করে। অপরদিকে, আজ সকালে তৃণমূল কর্মী খুনে ৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়। মোট ২৭ জনকে গ্রেফতার করা হয় শুধু কেশপুর থেকেই!

thebengalpost.in
আহত কর্মীদের নিয়ে তৃণমূল প্রার্থী শিউলি সাহা :

thebengalpost.in
আহত বিজেপি প্রার্থী প্রীতিশ রঞ্জন কোনার :

আরও পড়ুন -   কোভিড কো-মর্বিডিটিতে মাত্র পঞ্চাশেই চলে গেলেন মেদিনীপুরের আরেক প্রিয় মানুষ, সাংস্কৃতিক জগতে শোকের ছায়া