ভোটের মুখে প্রথম রাজনৈতিক মৃত্যু জঙ্গলমহলেই! তৃণমূল কর্মীর মৃত্যু ঘিরে চাপানউতোর, পথ অবরোধ

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, ঝাড়গ্রাম, ২২ মার্চ: ভোটের মুখে প্রথম রাজনৈতিক মৃত্যু পশ্চিমবঙ্গে। নির্বাচনী বিধি লাগু হওয়ার পর, রাজ্যে প্রথম কোনও রাজনৈতিক কর্মীর মৃত্যু হল রবিবার রাতে। গতকাল (২১ মার্চ), তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে এক তৃণমূল কর্মী’র মৃত্যু হয়েছে বলে শাসকদলের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়গ্রামের নেতুরা বাজার সংলগ্ন পিন্ডরাকুলি গ্রামে। নিহত তৃণমূল কর্মীর নাম দুর্গা সোরেন (৫৫)। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে এলাকা!

thebengalpost.in
ঝাড়গ্রামে এক তৃণমূল কর্মী’র মৃত্যু (ছবি ANI ) :

এই ঘটনা প্রসঙ্গে নিহত দুর্গা সোরেনের স্ত্রী সাকরো সোরেন বলেন, “বিজেপির লোকেরা আমাকে ও আমার স্বামীকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে।” এ নিয়েই ঝামেলার সূত্রপাত! এরপরই তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীদের মধ্যে অশান্তি থেকে হাতাহাতি-মারপিট শুরু হয়। অন্যদিকে, আগুইবনির গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি সদস্য মানিক সাউয়ের অভিযোগ, “আমার ভাই তারক সাউকে মারধর করেছে তৃণমূলের লোকেরা। হাত পা ভেঙে দিয়েছে। এখন ঝাড়গ্রাম জেলা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি আছে।” অপরদিকে, তৃণমূলের আগুইবনি অঞ্চলের সভাপতি জগদীশ মাহাতো পাল্টা অভিযোগ করেন, “গন্ডগোলের ঘটনায় আমাদের কর্মী দুর্গা সোরেনের মৃত্যু হয়েছে।”

thebengalpost.in
ঝাড়গ্রামে এক তৃণমূল কর্মী’র মৃত্যু (ছবি ANI ) :

ঝাড়গ্রাম জেলার পুলিশ সুপার ইন্দিরা মুখোপাধ্যায় বলেন, “ঘটনার কথা শুনেছি। কী কারণে মৃত্যু হয়েছে তা এখনই বলা সম্ভব নয়। ময়নাতদন্তের পর বলা যাবে। আমরা তদন্ত করে বিষয়টি দেখছি।” এদিকে, এই ঘটনার পর আজ সকালে তৃণমূল কর্মীরা দোষীদের শাস্তির দাবিতে পথ অবরোধ করে। পুলিশ দুই দলের ২ জন কর্মীকে গ্রেফতার করে। এরপর, অবরোধ উঠে যায়।

thebengalpost.in
বিজ্ঞাপন (Advertisement) :

আরও পড়ুন -   মাধ্যমিকের ফল প্রকাশের তৎপরতা শুরু করে দিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ