রেস্তোরাঁর আড়ালে পশ্চিম মেদিনীপুরে ‘হুক্কা বার’ আর ‘মদের আসর’, গ্রেপ্তার করা হল ৪ জনকে

বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, খড়্গপুর, ২৫ জানুয়ারি:’মিনি ইন্ডিয়া’ খড়্গপুর শহরের ‘প্রাণকেন্দ্র’ ইন্দা। মেদিনীপুর শহরের সঙ্গেও খড়্গপুরের সংযোগস্থলে এই এলাকা। এরকমই এক গুরুত্বপূর্ণ স্থানকে চিহ্নিত করেছিল রেলশহরের ধুরন্ধর ব্যবসায়ীরা। নামকরা রেস্তোরাঁ বা রেস্টুরেন্টের আড়ালে রমরমিয়ে চলছিল হুক্কাবার আর সঙ্গে মদের আসর। খড়্গপুর কলেজ থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে এই রেস্তোরাঁ। গতকাল সন্ধ্যায় গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, খড়্গপুর টাউন থানার পুলিশ হানা দেয়। তল্লাশি চালিয়ে কুড়ি লিটারের বেশি মদ উদ্ধার করে পুলিশ। সঙ্গে, হাতেনাতে খদ্দেরদের হুক্কা সেবনরত অবস্থায় পাকড়াও করে। বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারায়, রেস্টুরেন্টের সঙ্গে যুক্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করে খড়্গপুর টাউন থানার পুলিশ।

thebengalpost.in
খড়্গপুরে হুক্কা বার :

বিজ্ঞাপন
[ আরও পড়ুন -   খড়্গপুরে মধ্যরাতের দুর্ঘটনায় বিদ্যুতহীন কমলা কেবিন এলাকা, আহত দুই শিশু সহ বাবা-মা ]

স্থানীয় সূত্রে খবর, দীর্ঘ সময় ধরেই এই অবৈধ কারবার চলছে! পুলিশ ও শাসকদলের কিছু যুব নেতার মদতও আছে এই কারবারে। নাহলে অনেক আগেই পুলিশ এই কারবার বন্ধ করতে পারত। তবে, শেষমেশ পুলিশ পদক্ষেপ নেওয়ার কিছুটা হলেও খুশি এলাকাবাসী! প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি খড়্গপুরের এসডিপিও বা মহকুমা পুলিশ আধিকারিক’কে বদলি করা হয়েছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, উচ্চ পদস্থ পুলিশকর্তাদের নির্দেশেই, খড়্গপুর টাউন থানার আইসি রাজা মুখার্জি এবং এস আই স্বরূপ মুখার্জি’র নেতৃত্বে এই অভিযান চালানো হয়। প্রায় ২০ লিটার মদ ছাড়াও, বিভিন্ন ধরনের হুক্কা, বিয়ার এবং নগদ কয়ে হাজার টাকা বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়, তারিক আহমেদ, ভি সন্দীপ, সাকলিন আলি শাহ, ফয়জল হোসেন নামে ৪ জনকে। ধৃতরা পাঁচবেড়িয়া ও নিমপুরা এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে পুলিশ সূত্রে। ধৃতদের আদালতে তোলার কথা জানিয়েছে পুলিশ। জেলা পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, এই ধরনের অভিযান এবার ধারাবাহিকভাবে চলবে।

thebengalpost.in
বাজেয়াপ্ত করা হল মদ ও হুক্কা :

thebengalpost.in
রেস্তোরাঁর আড়ালে হুক্কাবার :

Advertisements
[ আরও পড়ুন -   মৃত্যুর ১০০ বছর পর ইতিহাসের আলোকে মেদিনীপুরের 'রাজামশাই' ]

Advertisements