পশ্চিম মেদিনীপুরের ‘ইতিহাস দর্পণ’ এ সমাজ, ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির মেলবন্ধন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ১১ মার্চ: পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতন থেকে সম্প্রতি প্রকাশিত হল, ইতিহাস বিষয়ে গবেষণাধর্মী পত্রিকা “ইতিহাস দর্পণ”। ই-পুস্তিকা আকারে এই পত্রিকা প্রকাশ করেন বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপিকা দেবযানী দাস। এই পত্রিকায় স্থান পেয়েছে রাষ্ট্রপতি-পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ও রবীন্দ্র গবেষক ড. বিবেকানন্দ চক্রবর্তীর লেখা প্রবন্ধ – ‘রবীন্দ্রনাথ ও গান্ধীজী : বৈপরীত্যের সমাপতন’, বীরভদ্রপুর রঘুনাথ হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক শিবশঙ্কর সেনাপতির লেখা প্রবন্ধ – ‘কলির ব্যাস ঋষি রাজনারায়ণ বসু’, শত্রুঘ্ন কাহারের লেখা প্রবন্ধ – ‘লক ডাউনের রোজ নামচা’, ইতিহাসের গবেষক তথা ইতিহাস দর্পণের সম্পাদক স্বপন দাসের লেখা প্রবন্ধ – ‘ইতালির রেনেসাঁস ও বাংলার নবজাগরণ : একটি তুলনামূলক পর্যালোচনা’।

thebengalpost.in
ইতিহাস দর্পণ :

এছাড়াও প্রসেনজিৎ মুখোপাধ্যায়, অনিন্দিতা মিত্র, সুরাজ পাল, শিল্পা শীল, শান্তিপদ নন্দ, অঙ্কিত গাঙ্গুলী, শ্যামল বেরা প্রভৃতি লেখকদের লেখায় সমৃদ্ধ হয়েছে এই পত্রিকাটি। পত্রিকাটি সম্পাদনা করেছেন বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের ছাত্র স্বপন দাস। তাঁকে সহযোগিতা করেছেন তনুজা মিশ্র ও গৌরাঙ্গ পাত্র। পত্রিকাটির উপদেষ্টা মণ্ডলীতে রয়েছেন বীরভদ্রপুর রঘুনাথ হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক শিবশঙ্কর সেনাপতি ও সাঁকরাইল অনিল বিশ্বাস স্মৃতি-মহাবিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক প্রসেনজিৎ মুখোপাধ্যায়। পত্রিকার সম্পাদক স্বপন দাস এক বার্তায় বলেছেন, “ইতিহাস হলো অতীতের সত্য-স্বরূপ এক অনন্ত মানব সমাজের অনির্বাণ দীপশিখা। ইতিহাস ত্রিকালসূত্রে প্রথিত। ইতিহাস অতীতের অভিজ্ঞতা, বর্তমানের সাধনা ও ভবিষ্যতের ইঙ্গিত। ইতিহাস জানা খুবই জরুরী। এই উদ্দেশ্যে আমার এই উদ্যোগ”।

আরও পড়ুন -   অসুস্থ ফুটবল তারকা দিয়েগো মারাদোনা, ভর্তি হাসপাতালে