মেদিনীপুরের মাটি স্পর্শ করল করোনা ভ্যাকসিন ‘কোভিশিল্ড’, কাল থেকেই পৌঁছে যাচ্ছে ব্লকে ব্লকে

মণিরাজ ঘোষ, মেদিনীপুর, ১৩ জানুয়ারি: মেদিনীপুরের মাটি স্পর্শ করল বহু আকাঙ্খিত করোনা ভ্যাকসিন- ‘কোভিশিল্ড’। আজ (১৩ জানুয়ারি), দুপুর ২ টো ৩৫ নাগাদ, ইনসুলেটেড ভ্যানে করে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য ভবনের মেডিক্যাল স্টোরে পৌঁছল কোভিশিল্ডের ২৬,০০০ ডোজ। কলকাতার বাগবাজার সেন্ট্রাল ফেমিলি ওয়েলফেয়ার স্টোর থেকে, কড়া পুলিশি নিরাপত্তায় এই ইনসুলেটেড ভ্যান মেদিনীপুর শহরের শরৎপল্লীতে অবস্থিত জেলা স্বাস্থ্য ভবনের পরিবার কল্যাণ স্টোরে পৌঁছল। উপস্থিত ছিলেন, উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী ছাড়াও স্বাস্থ্য দপ্তরের অন্যান্য কর্মী ও আধিকারিকরা।

thebengalpost.in
পশ্চিম মেদিনীপুরে পৌঁছে গেল ‘কোভিশিল্ড’ :

প্রসঙ্গত, বিশেষ কোল্ড চেন ব্যবস্থায়, ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সংরক্ষিত করে রাখা হয়েছে ভ্যাকসিনের এই ২৬,০০০ ডোজ। আগামীকাল থেকেই জেলার তিনটি মহাকুমার মোট ২১ টি গ্রামীণ হাসপাতাল, ২ টি মহকুমা হাসপাতাল, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ এবং কেরানীটোলায় অবস্থিত জেলা পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র সহ মোট ২৫ টি ভ্যাকসিনেশন সেন্টার বা কোল্ড চেন পয়েন্টে পৌঁছে দেওয়া হবে এই ভ্যাকসিন। প্রায় ২৪,৪৮৩ জন স্বাস্থ্যযোদ্ধাকে ১৬ ই জানুয়ারি থেকে এই ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ প্রদান করা হবে।

thebengalpost.in
পশ্চিম মেদিনীপুরে পৌঁছে গেল ‘কোভিশিল্ড’ :

আজ (১৩ জানুয়ারি), জেলার উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী জানিয়েছেন, “বহু প্রতীক্ষিত সেই করোনা ভ্যাকসিন এসে পৌঁছল জেলায়। সিরাম ইনস্টিটিউটের ‘কোভিশিল্ড’ ভ্যাকসিনের ২৬০০০ ডোজ এসে পৌঁছেছে বিশেষ ইনসুলেটেড ভ্যানে করে। আগামীকাল থেকেই ২৫ টি সেন্টার বা কোল্ড চেন পয়েন্টে আমরা ইনসুলেটেড ভ্যানে করে তা পাঠিয়ে দেব। নথিভুক্ত ২৪ হাজারের কিছু বেশি স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য আধিকারিকদের আগামী প্রায় এক মাস ধরে, ধাপে ধাপে এই ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। তবে, সপ্তাহের যে দু’দিন (বুধবার ও বৃহস্পতিবার) অন্যান্য ভ্যাকসিন নেওয়া হয়, ওই দু’দিন কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন দেওয়া হবে না। আমরা জেনারেল ভ্যাকসিনেশন বা ইমুনাইজেশন ব্যবস্থাকেও সচল রাখতে চেয়েছি। জেলা প্রশাসন ও জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে সমস্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে ইতিমধ্যে।”

thebengalpost.in
পশ্চিম মেদিনীপুরে পৌঁছে গেল ‘কোভিশিল্ড’ :

আরও পড়ুন -   "করোনাকে আর ভয় নয়, জয় হবে নিশ্চয়", তিনটি ধাপে টিকাকরণের জন্য প্রস্তুত পশ্চিম মেদিনীপুর