মেদিনীপুরে সবুজখেকো ‘রাক্ষুসে’ শুঁয়োপোকা ঘিরে আতঙ্ক

মণিরাজ ঘোষ ও নবীন কুমার ঘোষ, মেদিনীপুর, ২৯ আগস্ট : নতুন আতঙ্ক মেদিনীপুর সদর ব্লকে! এক রাতের মধ্যে বড় বড় জাম গাছ, শাল‌ গাছের সমস্ত পাতা খেয়ে সাফ করছে একদল পতঙ্গ, পড়ে আছে কঙ্কালসার শুকনো গাছের সারি। না‌ পঙ্গপাল নয়! আসলে, একশ্রেণীর শুঁয়োপোকা বা শূককীট বা লার্ভা (Nolidae শ্রেণীর)। মেদিনীপুর সদর ব্লকের বেলিয়া, খড়িকাশুলি প্রভৃতি গ্রামে, প্রধানত জাম গাছের সমস্ত পাতা একেক রাতে পাঁচ-ছ’টি করে গাছের একেবারে সাবাড় করে দিচ্ছে। গত তিনদিন ধরে এই গ্রামগুলির বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে ২০ থেকে ৩০ টি‌ গাছ একেবারে শুকনো কঙ্কালসার করে দিয়েছে এই নোলিডাই শ্রেণীর শূককীটের দল। তবে, জাম ছাড়িয়ে শাল সহ আরো বেশ কিছু গাছেও ‘এনাদের’ প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে, ঐ সকল গ্রামগুলিতে গিয়ে আজ চাক্ষুষ করা গেল! আতঙ্কিত গ্রামবাসীরা প্রশাসন থেকে শুরু করে বনদপ্তর, পুলিশ থেকে সাংবাদিক সকলকেই খবর দিয়েছেন। আসলে, চিন্তা তাঁদের আম, জাম, কাঁঠাল নিয়ে নয়, মাঠের ফসল বা ধান এবং বিভিন্ন সবজি’কে ঘিরে। এমনিতেই মহামারী, তার উপর প্রবল বৃষ্টি, সঙ্গে এই রাক্ষুসে পতঙ্গ’কে নিয়ে চিন্তা হওয়ারই কথা! তাই, আতঙ্কের এই খবর পেয়ে, আজ সরেজমিনে বিষয়টি তদন্ত করতে পৌঁছেছিলেন জেলার কৃষি ও সেচ দপ্তরের কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি। তিনি আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন, “ভয়ের কিছু নেই, এটা শুঁয়োপোকা জাতীয় একটি পতঙ্গ। ধান বা সবজির ক্ষতি করবেনা। বড় বড় গাছেরই ক্ষতি করবে সাময়িকভাবে। বনদপ্তর’কে বিষয়টি জানানো হচ্ছে, যাতে উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।”

আরও পড়ুন -   স্ত্রী'র মৃত্যুর এক ঘন্টার মধ্যেই স্বামী'র মৃত্যু মেদিনীপুর মেডিক্যালে, জন্মাষ্টমীর দিন ছেলে শোনালেন "বাবা-মা'র অমর প্রেমকাহিনী"
thebengalpost.in
কৃষি কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি :

ইতিমধ্যে, ওই এলাকা ঘুরে এসেছেন পরিবেশপ্রমী রাকেশ সিংহ দেবও। তিনি দ্য বেঙ্গল পোস্ট’কে জানালেন, “Nolidae পরিবারের মধ্যে প্রায় ১৪০০ প্রজাতির মথ রয়েছে। প্রজাপতির মত মথের জীবন চক্রেও চারটি পর্যায়। দ্বিতীয় পর্যায় হল শুককীট বা শুঁয়োপোকা। এই পর্যায়ে এরা প্রচুর পরিমানে গাছের পাতা খায়। বিভিন্ন প্রজাতির জন্য আলাদা আলাদা গাছ বা গাছের পাতা নির্ধারিত থাকে। এই প্রজাতির জন্য যেমন জাম গাছ ‘হোস্টিং প্ল্যান্ট’। কয়েকদিন পরে, এরা এদের জীবনের তৃতীয় পর্যায় পিউপা অবস্থায় চলে গেলে এই সমস্যা কেটে যাবে।”

আরও পড়ুন -   করোনা যুদ্ধে এখনো পর্যন্ত তিন শতাধিক স্বাস্থ্য যোদ্ধা সংক্রমিত জেলায়, মৃত্যু ৩ জনের, যোদ্ধাদের জন্য হাসপাতাল আগামী সপ্তাহে
thebengalpost.in
এই সেই রাক্ষুসে শুঁয়োপোকা (Nolidae) :

এদিকে, গ্রামবাসী ও জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি’র আবেদনে বনদপ্তর খুব শীঘ্রই বিষয়টি নিয়ে পদক্ষেপ করবে বলে জানা গেছে। চাঁদড়া রেঞ্জের রেঞ্জ অফিসার সুদীপ পান্ডা জানিয়েছেন, ওই এলাকায় গিয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

thebengalpost.in
Nolidae :

** আরো পড়ুন : এন আই এ ‘র জেরা জঙ্গলমহলের তৎকালীন জনসাধারণের কমিটির নেতা ছত্রধর মাহাত’কে.