এবার করোনা-যুদ্ধে জয়ী হলেন কেশিয়াড়ির বিডিও এবং মেদিনীপুর মেডিক্যালের জুনিয়র চিকিৎসক, জেলায় আক্রান্ত ১১ জন

মণিরাজ ঘোষ, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৭ জুলাই : করোনা যুদ্ধে জয়ী পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার প্রথম সারির আর এক করোনা-যোদ্ধা (front-line warrior)! কেশিয়াড়ি’র বিডিও সৌগত রায় এবার করোনা জয় করে ফিরলেন। আপাতত কয়েকদিন হোম আইশোলেশনে থাকবেন, তার পর ফের যুদ্ধের ময়দানে অবতীর্ণ হবেন। শালবনী করোনা হাসপাতাল থেকে গতকাল (২৬ জুলাই) তিনি করোনা-মুক্ত হয়ে ফিরেছেন। ধন্যবাদ জানিয়েছেন, সকল স্তরের প্রশাসনিক আধিকারিক, পুলিশ ও স্বাস্থ্য কর্মীদের। উল্লেখ্য যে, গত ১৯ জুলাই তাঁর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল। প্রসঙ্গত এও উল্লেখ্য যে, গত ১৭ জুলাই করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসা, জেলার অপর এক করোনা-যোদ্ধা চন্দ্রকোনা-১ এর বিডিও অভিষেক মিশ্র করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন গত ১৭ জুলাই এবং তিনি করোনা-মুক্ত হয়েছেন গত ২৫ জুলাই, শনিবার। তিনি করোনা যুদ্ধ জয় করে ফিরেই, প্লাজমা দান করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন বলে জানা যায়।

আরও পড়ুন -   করোনা মোকাবিলায় আরো সতর্ক রাজ্য, সমন্বয় রক্ষায় নতুন পদ, পশ্চিম মেদিনীপুরের দায়িত্বে ডাঃ কৃপাসিন্ধু গাঁতাইত, পূর্বেও দায়িত্বে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, ঝাড়গ্রামে নেই কেউ
thebengalpost.in
আলোচনায় ব্যস্ত কেশিয়াড়ির বিডিও (ফাইল ছবি) :

অন্যদিকে, গত ২০ জুলাই মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের এক জুনিয়র চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। তিনিও শালবনী করোনা হাসপাতাল থেকে গতকাল (২৬ জুলাই) করোনা মুক্ত হয়ে ফিরেছেন। এদিকে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য ভবনের রিপোর্ট অনুযায়ী, গতকাল অর্থাৎ রবিবার জেলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১১ জন। এর মধ্যে, খড়্গপুরের ২ জন, ইন্দা (উত্তর রামপুরা) এলাকার এক পুলিশ আধিকারিক (৫৬) এবং সালুয়ার এক ইএফআর (৩৮) জওয়ান। ডেবরা’র আক্রান্ত হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক (বারাটি, লোয়াদা ৯ নং গ্রাম পঞ্চায়েত) এর পরিবারের দুই সদস্য (স্ত্রী ও ছেলে) করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, তবে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের রিপোর্ট নেগেটিভই এসেছে। চন্দ্রকোনারোডের (নবকোলা, সাতবাঁকুড়া) আক্রান্ত পরিবারের নতুন এক সদস্যের (৫১) রিপোর্টও গতকাল রাতে পজিটিভ এসেছে। এই নিয়ে পরিবারের মোট ১২ জন করোনা আক্রান্ত হলেন। এছাড়াও, বেলদা থানার ধনেশ্বরপুর (সাবড়া) এলাকার এক যুবকের (৩৫) রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে নতুন করে। এছাড়াও, ঘাটাল পৌরসভার ১৬ নং ওয়ার্ডে নতুন করে ২ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁরা একই পরিবারের মা (৪২) ও মেয়ে (২১) বলে জানা যায়। দাসপুর-১ এ নতুন করে ৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বলেও জানা যায়, জেলা স্বাস্থ্য ভবন সূত্রে।

thebengalpost.in
জেলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত ১১ জন :